ট্যুরিস্ট পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার শিশু জাকিয়া। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

পর্যটকের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সদা তৎপর ট্যুরিস্ট পুলিশ। তারই উদাহরণ যেন আবার পাওয়া গেলে পটুয়াখালীর কুয়াকাটায়। সেখানে সমুদ্র সৈকতে পরিবারের সঙ্গে বেড়াতে আসা এক শিশু হারিয়ে যাওয়ার পর ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যদের তৎপরতায় তাকে দ্রুত উদ্ধার করা হয়। তার আগে সৈকতে এক পর্যটকের মানিব্যাগ হারিয়ে যাওয়ার পর সেটিও উদ্ধার করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলেছে, কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত এলাকায় গত ১৯ অক্টোবর পরিবারের সঙ্গে বেড়াতে আসে ফরিদপুরের শিশু মোসা. জাকিয়া (৪)। খেপুপাড়ায় সেদিন রাত একটি হোটেলে কাটানোর পর ২০ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তারা সৈকতে যায়। সেখানে কিছুক্ষণ পর জাকিয়া পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। অনেক খোঁজাখুজির পরও তাকে না পেয়ে তার নানা-নানি সৈকতের জিরো পয়েন্টে দায়িত্ব পালনরত ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যদের বিষয়টি জানান। এরপর ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যরা কাজ শুরু করেন।

অনেক খোঁজাখুঁজির পর বেলা সোয়া ১১টার দিকে কুয়াকাটা জিরো পয়েন্ট থেকে প্রায় আধ কিলোমিটার দূরে জাকিয়াকে উদ্ধার করেন ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যরা। সে সময় পরিবারের সদস্যদের না পেয়ে কাঁদছিল শিশুটি। পরে তাকে নানা-নানির জিম্মায় দেওয়া হয়। ট্যুরিস্ট পুলিশের সহযোগিতায় খুশি হয়ে পরিবারটি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়েছে।

ট্যুরিস্ট পুলিশের চেষ্টায় হারিয়ে যাওয়া মানিব্যাগ ফিরে পান পর্যটক শাহীন। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

এদিকে গত ১৭ অক্টোবর দুপুরে কুয়াকাটা সৈকতে মানিব্যাগ হারিয়ে ফেলেন বরগুনা থেকে আসা পর্যটক মো. শাহীন (২৩)। বিষয়টি জানার পর কাজ শুরু করেন দায়িত্ব পালনরত ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যরা। বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ট্যুরিস্ট পুলিশ মানিব্যাগটি সৈকতের একটি জায়গা থেকে উদ্ধার করে শাহীনকে বুঝিয়ে দেয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে