রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ, ফাইল ছবি

রোহিঙ্গা নেতা ও আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের (এআরএসপিএইচ) চেয়ারম্যান মুহিবুল্লাহ হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে ‘কিলিং স্কোয়াড’-এর এক সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ১৪ এপিবিএন। খবর জাগোনিউজ২৪ডটকমের।

আজ শনিবার সকালে ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক এসপি নাইমুল হক বিষয়টি উল্লেখ করে এক খুদে বার্তায় বলেছেন, এ বিষয়ে দুপুরে ব্রিফিং করে বিস্তারিত জানানো হবে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১৪ এপিবিএন কার্যালয়ে এ ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান তিনি।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে বন্দুকধারীরা মুহিবুল্লাহকে গুলি করে হত্যা করে। এ ঘটনায় তাঁর ছোট ভাই হাবিবুল্লাহ অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামি করে উখিয়া থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় এ পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এঁদের মধ্যে একজন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

২০১৯ সালের ২৫ আগস্ট উখিয়ার কুতুপালং শিবিরের ফুটবল মাঠে গণহত্যাবিরোধী মহাসমাবেশ হয়েছিল। তাতে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা অংশ নিয়েছিলেন। সেই সমাবেশ সংগঠিত করেছিলেন মুহিবুল্লাহ। ৪৮ বছর বয়সী মুহিবুল্লাহকে রোহিঙ্গারা ‘মাস্টার মুহিবুল্লাহ’ বলে ডাকতেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে