পুলিশি হেফাজতে গ্রেপ্তার ডাকাতরা। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ।

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ সম্প্রতি ওই থানা এলাকায় সংঘটিত ডাকাতির ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৭জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

আজ সোমবার (২১ নভেম্বর) জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম, পিপিএম তাঁর কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ওই ডাকাতির ঘটনা, সাত ডাকাতকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ও লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারের বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করেন।

তিনি জানান, গত ২৭ অক্টোবর রাত আনুমানিক সোয়া ২টা থেকে ৩ টার মধ্যে অজ্ঞাতনামা ১০/১৫জন মুখোশধারী অস্ত্রধারী ডাকাত সোনাইমুড়ী থানাধীন সোনাইমুড়ী পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড সোনাইমুড়ী পূর্বপাড়া চাঁদ মিয়ার বেপারী বাড়ীতে ডাকাতি করে। ডাকাতরা বসতঘরের দরজার ছিটকিনি ভেঙে দেশি ধারালো ছেনি,চাকু, চাপাতি নিয়ে প্রবেশ করে এবং অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বাড়ির লোকদের মুখ হাত-পা বেঁধে আলমারির তালা ভেঙে ৩০.৭ ভরি স্বর্ণালংকার, ডায়মন্ড সেট ২টি ও নগদ ৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকাসহ সর্বমোট ৩৬ লাখ ৯৩ হাজার ১০০ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় ।

এ ঘটনায় বেপারী বাড়ির বাসিন্দা মো.জাকির হোসেন মানিক সোনাইমুড়ী থানায় মামলা করেন। এরপর এ মামলার তদন্তভার এসআই মো. জামাল হোসেনের উপর অর্পণ করা হয়। তার নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস টিম সম্প্রতি অভিযান চালিয়ে সাত ডাকাতকে গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে একটি দেশি পাইপগান, ৩ রাউন্ড রাবার কার্তুজ,দুটি লোহার শাবল,৪টি চিকন দা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার ডাকাতরা হলেন- খোরশেদ আলম টিপু (৩৭),
মো. ফারুক (৪০), নুর কাশেম,
মো. ইউসুফ (৩৫), মুরাদ হোসেন(২৫), রুবেল ও
নুর ইসলাম।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে