গ্রেপ্তার হওয়া ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য। ছবি : পুলিশ নিউজ

হাইওয়ে পুলিশ গাজীপুর রিজিওনের অধীন কাঁচপুর হাইওয়ে থানাধীন শিমরাইল হাইওয়ে ক্যাম্প পুলিশের হাতে ছিনতাইকারী চক্রের এক সদস্য হাতেনাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর নাম জাহিদ।

ভুক্তভোগী মো. ইউনুস (ছদ্মনাম) জানান, গত মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) বাবার চিকিৎসার জন্য কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে কুমিল্লা আসার সময় ভাড়ায় চালিত একটি মাইক্রোবাসে ওঠেন তিনি। কিছুক্ষণ পর চালক ও সহযাত্রীরা তাঁকে পিস্তল ঠেকিয়ে ২৫ হাজার টাকা, বিকাশে থাকা ২০ হাজার টাকা এবং দুটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেন। সেই ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে চৌদ্দগ্রাম থানায় ছিনতাই মামলা করেন।

এরপর গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই ভুক্তভোগী তাঁর ঢাকার কর্মস্থল থেকে কুমিল্লা ফেরার পথে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড এলাকায় পৌঁছালে উক্ত ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য জাহিদকে মাইক্রোবাসে যাত্রী ডাকার সময় তিনি চিনে ফেলেন। তিনি যাত্রী সেজে গাড়িতে উঠতেই গাড়িতে থাকা অপর ছিনতাইকারী মামুন তাঁকে চিনে ফেলেন এবং গাড়ি স্টার্ট দিয়ে দ্রুত ঢাকার দিকে পালিয়ে যান। যাত্রী ডাকতে থাকা জাহিদ পালানোর চেষ্টা করলে ভুক্তভোগীর চিৎকারে হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে এলে ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য জাহিদকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জাহিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়, তাঁদের চক্রে মোট চারজন সদস্য রয়েছেন। তাঁরা হলেন মামুন, লাভলু ও হোসেন। মামুন তাঁদের দলনেতা।

আসামি জাহিদকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা-পুলিশের হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।

শিমরাইল হাইওয়ে ক্যাম্প ইনচার্জ টি আই মশিউর আলম বলেন, একটি ছিনতাইকারী চক্র দীর্ঘদিন ধরে ভাড়ায় যাত্রী পরিবহনের নামে ছিনতাই করে আসছিল। চক্রের একজনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মহাসড়কে যেকোনো ধরনের ছিনতাই, ডাকাতি ও চাঁদাবাজি বন্ধে হাইওয়ে পুলিশ সর্বদা তৎপর রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে