ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ছবি : সংগৃহীত

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো প্রতি ম্যাচেই পাচ্ছেন গোলের দেখা। আগের ম্যাচে দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও তাঁর কীর্তিতেই জয় পেয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

এবার আতালান্তার বিপক্ষেও দলকে রক্ষা করলেন এ পর্তুগিজ তারকা। তাঁর জোড়া গোলেই সমতায় থেকে ম্যাচ শেষ করেছে ইউনাইটেড। খবর দ্য ডেইলি স্টারের।

গতকাল মঙ্গলবার (২ নভেম্বরে) রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ‘এফ’ গ্রুপের ম্যাচে আতালান্তার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আতালান্তার হয়ে গোল দুটি করেন ইয়োসিপ ইলিচিচ ও দুভান জাপাতা।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই সমান তালে লড়ে আতালান্তা। দল দখলও ছিল প্রায় সমান সমান। সামান্য কিছু এগিয়ে ছিল ইউনাইটেড। ৫৩ শতাংশ সময় বল দখলে ছিল তাদের। বারপোস্টে শটও নেয় তারা তিনটির বেশি। তাদের ১৩টি শটের বিপরীতে ১০টি শট নেয় আতালান্তা।

ম্যাচের দ্বাদশ মিনিটে এগিয়ে যায় আতালান্তা। অবশ্য এ গোলে দায় রয়েছে ইউনাইটেড গোলরক্ষক দাভিদ দি গিয়ার। জাপাতার কাছ থেকে বল পেয়ে নিচু শটে লক্ষ্যভেদ করেন ইলিচিচ। নিজের আয়ত্তের মধ্যে থাকলেও ধরতে পারেননি গোলরক্ষক।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সমতায় ফেরে ইউনাইটেড। দারুণ পাসিং ফুটবলে গোল আদায় করে নেয় দলটি। সতীর্থদের মধ্যে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে রোনালদোকে দারুণ এক ব্যাকহিল করেন ব্রুনো ফার্নান্দেজ। ফাঁকায় বল পেয়ে জালে জড়াতে কোনো ভুল করেননি রোনালদো।

৫৬তম মিনিটে আবার এগিয়ে যায় আতালান্তা। পালোমিনো দারুণ থ্রু পাস ধরে লক্ষ্যভেদ করেন জাপাতা। শুরুতে অফসাইডের বাঁশি বাজলেও ভিএআরে যাচাইয়ের সিদ্ধান্ত পাল্টালে উল্লাসে ফেটে পড়ে স্বাগতিকরা।

প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে গোল করেন রোনালদো। ডি-বক্সের মধ্যে থেকে গ্রিনউডের কাটব্যাক থেকে অসাধারণ এক কোনাকুনি ভলিতে দলকে সমতায় ফেরান এ পর্তুগিজ তারকা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটা তাঁর ১৩৯তম গোল।

এ ম্যাচে পয়েন্ট হারালেও গ্রুপের শীর্ষে আছে ইউনাইটেড। চার ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট তাদের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে