গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা। ছবি : আরএমপি নিউজ

রাজশাহী মহানগরীতে সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র এবং নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার লক্ষ্যে গোপন বৈঠক করার অপরাধে জামায়াত-শিবিরের ১২ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

এ সময় আসামিদের কাছ থেকে বিভিন্ন জিহাদি বই, মিছিলের ব্যানার, জামায়াত-শিবিরের সদস্য সংগ্রহ ফরম, ইয়ানত আদায়ের হিসাব বই ও চাঁদা আদায়ের রশিদ বই জব্দ করা হয়। খবর আরএমপি নিউজের।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন মো. মনিরুল ইসলাম (৫০), মো. কলিম উদ্দিন (৬৮), আব্দুল মতিন (২৫), মো. আব্দুল মমিন (২৫), মো. ফয়সাল আহমেদ (২০), মো. আজাহার আলী (৩৫), মো. আবু বক্কর (৪২), মো. আব্দুর রব (৩০), মো. উজ্জল হোসেন (৩৪), মো. আব্দুল হালিম (৩৫), মো. ওবেদ (৫০) ও মো. আবুল হোসেন (৬১)।

পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টা ৫ মিনিটে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) শাহমখদুম বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মো. আরেফিন জুয়েল, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, পবা থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুম মনির ও মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি বিশেষ দলের সমন্বয়ে যৌথ অভিযান পরিচালনা করছিলেন।

এ সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য আসে যে, পবা থানার পালোপাড়া মধ্যপাড়া গ্রামের একটি বাড়িতে জামায়াত-শিবিরের কয়েকজন সদস্য দেশ ও সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র এবং নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার লক্ষ্যে গোপন বৈঠক করছেন।

উক্ত সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে আরএমপির বিশেষ ওই টিম সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের ১২ জন সক্রিয় কর্মীকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগরীকে অপরাধমুক্তকরণ, নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড, দেশ ও সরকারবিরোধী অপপ্রচার নির্মূল করার লক্ষ্যে আরএমপির পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে