প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আইটি অফিসার পরিচয়ে হ্যাকিং করে টাকা নেওয়ার আসামি গ্রেপ্তার হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, মামলার বাদী বেগমগঞ্জের রাজাপুর এলাকার গোলাম রসুলের (৬২) সঙ্গে পরিচিত হয়ে নিজেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আইটি অফিসার পরিচয় দেন আসামি আব্দুল্লাহ আল মাসুদ। তিনি নিজের ভুয়া আইডি কার্ড এবং ভিজিটিং কার্ড প্রদর্শন করে সুসম্পর্ক গড়ে তোলেন গোলাম রসুলের সঙ্গে। পরে অপর আসামি জীবন চন্দ্র কুরিকে তাঁর সহযোগী বলে বাদীর কাছে পরিচয় করান।
বেগমগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, সুসম্পর্কের জের ধরে আসামি মাসুদ ও জীবন তাঁদের মোবাইলের বিকাশ, নগদ, রকেট, উপায় অ্যাকাউন্টে বাদীর এবি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে গত বছরের ২১ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি নাগাদ বিভিন্ন সময়ে একাধিক ট্রানজেকশনের মাধ্যমে ২৭ লাখ ৪৮ হাজার টাকা ট্রান্সফার করে নিয়ে যান।
বাদীর এজাহারের ওপর ভিত্তি করে বেগমগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলার তদন্তে বেরিয়ে আসে, আসামি আব্দুল্লাহ আল মাসুদ কৌশলে আদায় করা টাকা তাঁর নিজের এবং প্রয়াত স্ত্রী তাসনিম ফারহানার বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করেন। তিনি সহযোগী ও গ্রেপ্তার অপর আসামি সুইটি আক্তারকে কখনও ব্যাংকের স্টাফ, কখনও মন্ত্রণালয়ের স্টাফ বলে পরিচয় করাতেন।
মামলা তদন্তকারী দল আবদুল্লাহ আল মাসুদ, সুইটি, জীবন চন্দ্র কুরিকে গ্রেপ্তার করে। তাঁদের কাছ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আইটি অফিসার পরিচয়ে ভুয়া একটি আইডি কার্ড, চারটি ভিজিটিং কার্ড, হ্যাকিং, তিনটি মোবাইল এবং তিনটি এটিএম কার্ড জব্দ করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে