নৌ পুলিশের অভিযানে জব্দকৃত অবৈধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

বরিশাল ও চাঁদপুরে পৃথক অভিযান চালিয়ে ছয় কোটি মিটারের বেশি অবৈধ কারেন্ট জাল এবং দেড় হাজার কেজি মা ইলিশ জব্দ করেছে নৌ পুলিশ। ১৮ অক্টোবর (সোমবার) এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ইলিশের নিরাপদ প্রজননের স্বার্থে ৪ অক্টোবর থেকে ইলিশ ধরায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা চলছে। ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে ২২ দিনের এই নিষেধাজ্ঞা। এই সময়ে ইলিশ বেচাকেনা, পরিবহন, মজুত ও বিনিময় নিষিদ্ধ।

নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ট্রেনিং, লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া) স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নৌ পুলিশের চাঁদপুর অঞ্চল ১৮ অক্টোবর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ১ কোটি ১৭ লাখ ৬৭ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট ও সুতা জাল জব্দ করা হয়। এসব জালের আনুমানিক মূল্য ৩৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এ সময় ২৭৮ কেজি মা ইলিশ উদ্ধার করা হয়, যার বাজার মূল্য ১ লাখ ৩৯ হাজার টাকা। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করায় ২৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে সাতটি মামলা হয়েছে। অভিযানে ১৯টি নৌকা জব্দ করা হয়।

নৌ পুলিশের অভিযানে জব্দকৃত মা ইলিশ। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

এদিকে নৌ পুলিশের বরিশাল অঞ্চলের দল একই দিন অভিযান চালিয়ে ৪ কোটি ৯৮ লাখ ৫৩ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট, সুতা, সিনথেটিক ও বেহুন্দী জাল জব্দ করেছে। এসব জালের আনুমানিক মূল্য ১৫৯ কোটি ২৮ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। এ সময় ১ হাজার ২১৩ কেজি মা ইলিশ উদ্ধার করা হয়, যার বাজার মূল্য ৫ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করায় ৪৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে আটটি মামলা হয়েছে। অভিযানের সময় ১৫৫টি নৌকা জব্দ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, উদ্ধারকৃত ইলিশ মাছ স্থানীয় এতিমখানা এবং গরিব-দুঃখীদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। নৌকাগুলো সংশ্লিষ্ট ফাঁড়ির হেফাজতে রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে