নোয়াখালীতে পুলিশের অভিযানে আটক বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নেতাকর্মীরা। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

নোয়াখালীতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে গোপন বৈঠকের সময় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ৪৫ জন নেতা-কর্মীকে আটক করেছে। নোয়াখালীর সুধারাম থানা এলাকা থেকে ১৫ মে (রোববার) দুপুরে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

জেলা পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সুধারাম থানা-পুলিশের একটি দল সুধারাম পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের জয়কৃষ্ণপুর এলাকায় একটি ভবনের দ্বিতীয় তলায় ১৫ মে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অভিযান চালায়। এ সময় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ৪৫ জন নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়। আটক ব্যক্তিদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ ধর্মীয় উগ্রবাদ ছড়ানোর বই-পুস্তক, সরকারবিরোধী লিফলেট জব্দ করা হয়।

আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্দেশে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাতের লক্ষ্যে আসামিরা অন্তর্ঘাতমূলক কর্মকান্ড করার চেষ্টায় পরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন উপজেলার নেতা ও সক্রিয় কর্মীদের নিয়ে গোপন বৈঠক করছিলেন।

আটক ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন সোনাইমুড়ী উপজেলা জামায়াতের আমির মোহাম্মদ হানিফ (৫২), সুবর্ণচর উপজেলা জামায়াতের মানবসম্পদ সম্পাদক ওমর ফারুক (৩২), চাটখিল উপজেলা জামায়াতের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ওমর ফারুক (৫২), সেনবাগ উপজেলা জামায়াতের সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল আফসার (৫০), চাটখিল উপজেলা জামায়াতের নায়েবে আমির মহিউদ্দীন হাসান (৪৮), কবিরহাট উপজেলা জামায়াতের অফিস সম্পাদক এনায়েত উল্যাহ (৪২), সুধারাম থানার ধর্মপুর ইউনিয়ন জামায়াতের সভাপতি মো. মহিউদ্দিন (৪২), কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মো. বেলায়েত হোসেন (৫২), চাটখিল পৌরসভা জামায়াতের আমির মো. নুর হোসাইন (৩৫), বেগমগঞ্জ উপজেলা জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য মোবাশ্বের হোসেন (৫১) প্রমুখ।

আটক ব্যক্তিদের কাছ থেকে জব্দ করা ধর্মীয় উগ্রবাদ ছড়ানোর বই-পুস্তক ও সরকারবিরোধী লিফলেট। ছবি: বাংলাদেশ পুলিশ

জেলা পুলিশ জানায়, আটক ব্যক্তিরা জনগণের জানমাল ও সরকারি সম্পত্তির ক্ষতিসাধন, নির্বাচিত সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করাসহ চলমান শান্তিপূর্ণ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিনষ্ট করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের চলমান গণতান্ত্রিক সুষ্ঠু ধারাকে ব্যাহত করার লক্ষ্যে অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করার চেষ্টায় লিপ্ত ছিলেন। তাঁদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে