পুলিশি হেফাজতে দুই আসামি। ছবি: পুলিশ নিউজ

গাজীপুর সদর থানা এলাকায় জোড়া খুনের রহস্য উদ্ঘাটন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ শনিবার (২৭ নভেম্বর) গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন জাহিদুল ইসলাম খান (২১) ও মো. মহিউদ্দীন ওরফে বাবু (৩৫)। উভয় আসামির বাড়ি কালীগঞ্জ থানা এলাকায়।

জিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ছবি: পুলিশ নিউজ

পুলিশ জানায়, ২৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় গাজীপুর সদর থানার দেশীপাড়া বিমানবাহিনীর টেক এলাকায় দুটি লাশ পাওয়া যায়। পরে স্থানীয় ব্যক্তিদের তথ্য এবং প্রযুক্তির সহায়তায় তাঁদের পরিচয় শনাক্ত করে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা যায়, ভুক্তভোগীরা হলেন কালীগঞ্জ থানা এলাকার ফেরদৌসী (৩০) এবং তাঁর মেয়ে তাসমীয়া (৫)।

ভুক্তভোগীদের পরিচয় শনাক্ত হওয়ার পর তদন্তে নামে সদর থানা-পুলিশ। হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করতে ঢাকা ও গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়। একপর্যায়ে আসামি জাহিদুল ইসলাম খানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে সময় হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন তিনি। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অপর আসামি মো. মহিউদ্দীন ওরফে বাবুকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, আসামিদের দেওয়া তথ্যে ভুক্তভোগীর ব্যাগ এবং হত্যায় ব্যবহৃত দুটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। আসামিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে